প্রকৃতি

অতিরতি পীরিতি পরমনিধি তবু কেন ওষ্ঠের পিনাকবিদ্যুতে ঘর ভাঙ্গে বানভাসি লক্ষ্মীরঝাঁপি শরীর সত্য নয় কামনারশুখাফাটাজমি নিকষিত প্রেম নয় এ কোন শিলালিপি অবিরল বৃষ্টির ধারাগানে উদ্ভাস তোমার হে অগ্নিজ্বালা সহায় ও..

তবুও

তবুও বৃষ্টি পড়ে, ঝরে ঝরনা হয়ে কার তাতে কি তবুও আসা,আশা সাতসাবেকি রইলোটা কি তবুও শরিল,শরীর মাভৈ মাভৈ ভাতারখাকি তবুও উঠোন বসন অথৈ অথৈ আর কি বাকি অরিন্দমC @ 2015

শক্তিশেল

মধ্যরাতে কলকাতা শাসন করি আমি উত্তর ও দক্ষিণে দিনান্ত ধূসরিত যৌবন অপেক্ষায় থাকে যে ছায়াসুনিবিড় আশ্রয় তার ধৌত অমলিন দিকচক্রবালে আমার পদচিন্হ আঁকা প্রেম নৈ:শব্দজালে পরকীয়া জীবনের পরমগতি মধ্যযামে কলকাতা..

জীবন এখন

তোমরা যারা আমাকে হনন করো প্রতিদিন জেনে রেখো মেঘের অস্থিতে বাঁচে বৃষ্টির আশ্বাস মৃত্তিকা সন্ধান করে বীজ ভোরের আজান খোঁজে পাখির উড়াল সময় সচল জেনো হে মানব বিপণনকারি শব কীটভষ্ম..

মধ্যপদ

ভাল লাগে না কিছুই চল চলে যাই অনির্দেশে অনায়াস মাটি আকাশ সূর্যশিশিরকণা নিজস্ব যা কিছু আছে সব ত্যাগ করে চলে যাই চল হেম তপোবনে আহাহা মেয়েটি আমার বড়ই ছোটটি আরেকটু..